Fact Check: জ্বালানির দাম নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিবাদের পুরনো ভিডিও বিভ্রান্তিকর দাবি–সহ ভাইরাল

0 367

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্কুটার চালানোর একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হচ্ছে। এই ভিডিওটি শেয়ার করে ব্যবহারকারীরা দাবি করেছেন যে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে কীভাবে স্কুটার চালাতে হয় তা শেখানোর জন্য পুরো রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল, এবং পুরো প্রশাসন তাঁকে সাহায্য করছে।

ভিডিওটি একটি হিন্দি ক্যাপশন সহ ফেসবুকে শেয়ার করা হয়েছে:“ममता बनर्जी को स्कूटी सिखाने के लिए पूरी सड़क बंद कर दी और पूरा शासन स्कूटी सिखाने में लगा है ऐसे ही  नेताओ ने देश को बर्बाद किया है” (অনুবাদ: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্কুটার চালানো শেখাতে পুরো রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল এবং পুরো প্রশাসন তাঁকে শেখাতে ব্যস্ত ছিল। এ ধরনের নেতারা দেশকে ধ্বংস করেছে।)

এখানে ওপরের পোস্টের (‌ post )‌ লিঙ্ক দেওয়া হল।

FACT CHECK

নিউজমোবাইল উপরোক্ত দাবিটির সত্য–পরীক্ষা করেছে এবং এটি বিভ্রান্তিকর বলে মনে করেছে।

ইনভিড টুল ব্যবহার করে আমরা ভাইরাল ভিডিও থেকে কিফ্রেমগুলি বের করেছি এবং একটি রিভার্স ইমেজ সার্চ করেছি৷ এই অনুসন্ধানটি আমাদের ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১–এর দ্য ইকনমিক টাইমস (‌ The Economic Times )‌ প্রকাশিত একটি সংবাদ প্রতিবেদনে নিয়ে যায়, যেখানে ব্যানার্জির স্কুটার চালানোর অনুরূপ দৃশ্য রয়েছে। নিবন্ধের শিরোনামটি ছিল: “দেখুন: জ্বালানি মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বৈদ্যুতিক স্কুটার চালাতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় পড়ে যান”

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১–এ এএনআই (‌ ANI )‌ ভিডিওটিও আপলোড করেছিল এই ক্যাপশন সহ: “জ্বালানির দামবৃদ্ধির প্রতিবাদের চিহ্ন হিসাবে হাওড়ায় একটি বৈদ্যুতিক স্কুটার চালানোর সময় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় পড়ে গেছিলেন। তিনি দ্রুত অন্যদের সহায়তায় ভারসাম্য ফিরে পান এবং ড্রাইভ করে যেতে থাকেন। তিনি নবান্নের রাজ্য সচিবালয় থেকে কালীঘাটে যাচ্ছেন।” অন্যান্য অনেক নিউজ ( news )   ওয়েবসাইটও ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে একই ভিস্যুয়াল (‌ visuals )‌ ব্যবহার করেছিল।

আমরা একটি কিওয়ার্ড (‌ keyword )‌ অনুসন্ধানও করেছি, কিন্তু ভাইরাল দাবিকে সমর্থন করে এমন কোনও সাম্প্রতিক মিডিয়া রিপোর্ট খুঁজে পাইনি।

উপরের তথ্য থেকে এটি স্পষ্ট যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইলেকট্রিক স্কুটার চালানোর একটি পুরনো ভিডিও বিভ্রান্তিকর দাবি সহ সাম্প্রতিক হিসাবে শেয়ার করা হচ্ছে।