Fact Check: এক অস্ট্রেলিয়ান ফ্যানের ভারতের জন্য জয়ধ্বনি করার পুরনো ভিডিও সাম্প্রতিক বলে শেয়ার করা হচ্ছে

0 347

১১ নভেম্বর টি–২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের পর সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও ঘুরছে, যাতে দেখা যাচ্ছে এক তরুণ অস্ট্রেলিয়ান জার্সি–পরা ফ্যান ‘‌ভারত মাতা কি জয়’‌ ও ‘‌বন্দেমাতরম’‌ বলে জয়ধ্বনি দিচ্ছেন। এতে দাবি করা হয়েছে যে পাকিস্তানের হারের সময় এক অস্ট্রেলিয়ান ফ্যান ভারতের জন্য জয়ধ্বনি করছিলেন।

এক ফেসবুক ইউজার (‌ Facebook user  )‌ ভিডিও শেয়ার করার সময় হিন্দিতে যে ক্যাপশন দিয়েছেন অনুবাদে তা এরকম, “অস্ট্রেলিয়া আমাদের ভাই। ভারত মাতা কি জয়#australia #PAKVSAUS”

(Original: ऑस्ट्रेलिया अपना भाई है भारत माता की जय #australia #PAKVSAUS)

টুইটারেও একই ক্যাপশন দিয়ে ভিডিওটি শেয়ার করা হচ্ছে।

এই ভিডিও পোস্ট দেখুন এখানে ও এখানে (‌ here and here )‌।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল এর ফ্যাক্ট চেক করে দেখেছে যে এই দাবি বিভ্রান্তিকর।

প্রাসঙ্গিক কিওয়র্ড সার্চ করে আমরা দেখতে পাই ২০২১ সালের ১৮ জানুয়ারি  এক টুইটার  ইউজার (‌ Twitter user )‌ এমন একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন। ভিডিওর ক্যাপশনে বলা ছিল, “গাব্বায় এই বছর ভারতের জন্য কিছু অসাধারণ প্রেম দেখা গিয়েছিল।”

মিশ্র (‌ Misra )‌ আরও লিখেছিলেন, “আমি খুবই ভাগ্যবান যে ঠিক সময় ঠিক জায়গায় ছিলম বলে রেকর্ড করতে পেরেছি এই অসাধারণ তরুনের আশ্চর্য জয়ধ্বনি, এবং তা অভ্রান্ত উচ্চারণে।”

আরও সন্ধান করে আমরা ইন্ডিয়া টুডে (‌ India Today )‌–র এ রিপোর্ট দেখতে পাই যেখানে বলা ছিল ঘটনাটি ২০২১ জানুয়ারির, যখন একজন অস্ট্রেলিয়ান ফ্যানকে ‘‌ভারত মাতা কি জয়’‌ ও ‘‌বন্দেমাতরম’‌ ধ্বনি দিতে শোনা গিয়েছিল বর্ডার–গাভাসকর ট্রোফিতে ভারত অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর পর।

রিপোর্টে বলা ছিল, “এই ভিডিওতে এই ফ্যানকে ভারতের জয়ধ্বনি করতে শোনা যাচ্ছে, এবং তাঁকে অনুসরণ করছেন ভারতীয় ফ্যানরা। গাব্বা টেস্টের চতুর্থ দিনে নেওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একক অস্ট্রেলিয়ান ফ্যান তীব্র কন্ঠে চিৎকার করছেন। ভারতীয় দল ইতিহাস তৈরি করে ব্রিসবেনে চতুর্থ টেস্টে তিন উইকেটে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বর্ডার–গাভাসকর ট্রোফি দখলে রাখার পর। ভারত জেতে গাব্বায়, যা ৩২ বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ার দুর্গ ছিল। সব প্রতিকূলতা পেরিয়ে টিম ইন্ডিয়া জয় হাসিল করার পর লক্ষ লক্ষ মানুষের হদয় জয় করে, এবং চারিদিক থেকে অভনন্দন বার্তা পায়।

জি নিউজেও (‌ Zee News )‌ ২০২১–এর ২০ জানুয়ারি এই ঘটনার রিপোর্ট ছিল।

কাজেই এটা স্পষ্ট যে ২০২১–এর জানুয়ারির ভিডিওকে অসত্যভাবে শেয়ার করা হচ্ছে  টি–২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের পরের সাম্প্রতিক ঘটনা হিসেবে।