Fact Check: এই ভিডিওতে কি এক মহিলাকে পিস্তল নিয়ে হাঁটতে দেখা যাচ্ছে?‌ সত্য জানুন এখানে

0 1,224

হিমাচল প্রদেশের হামিরপুরে এক মহিলাকে এক হাতে পিস্তল ও অন্য হাতে লাঠি নিয়ে রাস্তায় হাঁটতে দেখা গেছে বলে দাবি করে একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হচ্ছে।

একটি হিন্দি ক্যাপশন সহ ভিডিওটি ফেসবুকে শেয়ার করা হচ্ছে: “Hamirpur: दबंग महिला का हाथ में डंडा और पिस्टल लहराने का वीडियो वायरल”

(অনুবাদ: হামিরপুর: এক দুঃসাহসী মহিলার ভিডিও, হাতে লাঠি ও পিস্তল সহ, ভাইরাল হয়েছে।)


এখানে ওপরের পোস্টের (‌ post )‌ লিঙ্ক দেওয়া হল।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল এর সত্যতা যাচাই করে দেখেছে যে দাবিটি বিভ্রান্তিকর।

ইনভিড টুল ব্যবহার করে আমরা ভাইরাল ভিডিও থেকে কিফ্রেমগুলি বের করেছি, এবং প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ডগুলির একটি রিভার্স ইমেজ সার্চ করেছি৷ এই অনুসন্ধানটি আমাদের বিভিন্ন নিবন্ধে নির্দেশিত করেছে যা একই ঘটনার  সংবাদ  প্রতিবেদন (‌ news articles  )‌ পেশ করেছে। দৈনিক ভাস্করের (‌ Dainik Bhaskar )‌ মতে, “আজ হামিরপুরের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, যাতে দেখা গেছে এক মহিলার আধিপত্য। এক হাতে পিস্তল আর অন্য হাতে লাঠি নিয়ে এক ডাকাবুকো মহিলাকে রাস্তা থেকে হাঁটতে দেখা যায়।” ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর পুলিশ তদন্ত শুরু করে।

১৯ মে, ২০২২-এ জি নিউজ (‌ Zee News )‌ দ্বারা প্রকাশিত অন্য একটি সংবাদ প্রতিবেদন অনুসারে, মৌদাহার সার্কেল অফিসার বিবেক যাদবের পুলিশি তদন্তে বলা হয়েছে যে মহিলার কাছ থেকে উদ্ধার করা পিস্তলটি নকল। আসলে এটি একটি লাইটার যা দেখতে একটি পিস্তলের মতো। তদন্তে দেখা যায়, একটি মহিষ ওই মহিলার বাড়িতে ঢুকেছিল এবং তিনি মহিষটিকে তাড়ানোর জন্য লাঠি নিয়ে বেরিয়েছিলেন। এই সময় গ্রামের কিছু লোক ভিডিওটি রেকর্ড করে।

আরও অনুসন্ধান করে আমরা ভাইরাল দাবিকে বাতিল করে হামিরপুর পুলিশের (  Hamirpur Police ) একটি টুইট পেয়েছি। টুইট টেক্সটটি এইভাবে অনুবাদ করা যেতে পারে: “হামিরপুর – সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ভাইরাল ভিডিও/ছবিতে উল্লেখ করা পিস্তলটি পিস্তল নয়, বরং একটি লাইটার, যেটি মহিলাটি শিশুদের কাছ থেকে নিয়েছিলেন। কাউকে পিস্তল বা লাঠি দিয়ে ভয় দেখানোর কথা সম্পূর্ণ ভুল।”

কাজেই, উপরের তথ্য থেকে একথা স্পষ্ট যে ভাইরাল ভিডিওতে এক মহিলাকে হাতে পিস্তল নিয়ে রাস্তায় হাঁটতে দেখা যাচ্ছে না।