Fact Check: মৃতদেহ নিয়ে কুমিরের সাঁতারের ভিডিও ভারতের নয়

0 700

একটি মৃতদেহ সঙ্গে নিয়ে কুমিরের সাঁতার কাটার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে, এবং দাবি করা হচ্ছে এটি মধ্যপ্রদেশের। পোস্টে দাবি করা হয়েছে যে গান্ধী সাগর বাঁধে এক যুবক জলেতে পড়ে গিয়ে কুমিরের আক্রমণের শিকার হন।

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা এই ক্যাপশন সহ ভিডিওটি শেয়ার করছেন, ” ब्रेकिंग न्यूज़ मध्य प्रदेश गांधी सागर (डेम) पैर फिसलने से पानी में गिरा युवक मगरमच्छ ने किया हमला युवक की मौत :गांधी सागर:: डैम में पिकनिक मनाने गए युवकों में से एक युवक डैम की दीवार पर खड़ा होकर अंदर देख रहा था उसका पैर अचानक पैर फिसलने से युवक पानी में गिरा पानी में मगरमच्छ युवक पर किया हमला जिससे उसकी मृत्यु”

(‌অনুবাদ:‌ ব্রেকিং নিউজ মধ্যপ্রদেশ গান্ধী সাগরে (বাঁধ) পিছলে জলে পড়ে যাওয়া এক যুবককে আক্রমণ করেছে একটি কুমির। যুবকটি মারা গেছে: গান্ধী সাগর:: পিকনিক করতে যাওয়া যুবকদের একজন বাঁধের দেয়ালে দাঁড়িয়ে যখন ভিতরে তাকাচ্ছিল, সেই সময় হঠাৎ তার পা পিছলে যায়, যুবকটি জলে পড়ে যায় এবং একটি কুমিরের আক্রমণে তার মৃত্যু হয়।)

এখানে উপরের পোস্টের (‌ post )‌ লিঙ্ক।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল পোস্টটির সত্যতা যাচাই করেছে এবং দাবিটি মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে।

আমরা একটি কিওয়ার্ড অনুসন্ধান চালিয়ে ২২ আগস্ট, ২০২২ তারিখের মেক্সিকো নিউজ ডেইলির (‌ Mexico News Daily )‌ একটি প্রতিবেদন পেয়েছি, যেখানে ভিডিওটির একটি স্ক্রিনগ্র্যাব ছিল।

প্রতিবেদন অনুসারে, ভিডিওটি ১৮ আগস্ট, ২০২২-এ মেক্সিকোর তামাউলিপাসের লেগুনা দেল কার্পিন্টেরো সেতুতে চিত্রায়িত করা হয়েছিল।

লোকটি সকাল সাড়ে ৮টা (স্থানীয় সময়) নাগাদ সাঁতার কাটতে লেগুনে প্রবেশ করে। সে জানত না যে কাছাকাছি একটি কুমির সাঁতার কাটছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে ওই ব্যক্তিকে কুমির হত্যা করেছিল এবং তার মৃতদেহ ভোলান্টিনের কাছে উদ্ধার করা হয়। কুমিরটিকে আটক করা হয়েছে।

এবিসি নিউজ এবং ডেইলি মেইলও (‌ ABC News and Daily Mail )‌ একই ধরনের প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সুতরাং, আমরা এই উপসংহারে আসতে পারি যে ভাইরাল দাবিটি মিথ্যা, কারণ ভিডিওটি ভারতের নয়।