Fact Check: পাঞ্জাবে এফডিএ অফিসার খুনের পুরনো ঘটনা সাম্প্রতিক বলে ভাইরাল হয়েছে

0 510

সম্প্রতি এক মহিলার একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ভাইরাল হয়েছে এই দাবি করে যে নেহা শোরি নামে পাঞ্জাবের ওই ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন আধিকারিককে সম্প্রতি ফার্মাসি আউটলেটে অভিযান চালানোর জন্য এবং তাদের লাইসেন্স রদ করার কারণে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে, কারণ তারা নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য বিক্রি করছিল।

একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (‌ Facebook user  )‌ ছবিটিকে হিন্দিতে একটি ক্যাপশন সহ শেয়ার করেছেন যা অনুবাদে এরকম, “ইনি ডাঃ নেহা শোরি, যিনি পাঞ্জাবের ড্রাগ ইন্সপেক্টর পদে ছিলেন। কয়েক মাস আগে তাঁরা কয়েকটি ফার্মাসির আউটলেটে অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ ওষুধ বিক্রির দায়ে লাইসেন্স বাতিল করেন। গতকাল, এক মাদক ব্যবসায়ী মোহালিতে তার অফিসে গিয়ে তাঁকে দিবালোকে গুলি করে। একজন সৎ অফিসার যিনি মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন – যেটি পাঞ্জাবের প্রায় ৭০-৮০% যুবককে ধ্বংস করেছিল – তাঁকে গুলি করে হত্যা করা হল! নেহার মতো মানুষের সাহসিকতা আমাদের সশস্ত্র বাহিনী এবং পুলিশের মতোই গুরুত্বপূর্ণ। এই মানুষেরা দেশকে ভিতর থেকে রক্ষা করেন! তাঁরা আমাদের সমাজ, আমাদের যুবক এবং আমাদের জনগণকে রক্ষা করেন! এই সাহসী এবং সৎ মহিলার প্রতি আন্তরিক স্যালুট যিনি বহু যুবকের ভবিষ্যত রক্ষা করে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন! বিবেচনা করুন যে ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া চারদিকে নীরব, তাই এখন পাঞ্জাবে মাদকের বিষয়ে কেউ কথা বলবে না।”

(মূল:#उड़ता_और_उडाता_पंजाब…ये है डॉ नेहा सूरी, जो पंजाब में ड्रग इंस्पेक्टर के पोस्ट पर तैनात थीं। कुछ हीं महीने पहले इन्होंने कुछ फार्मेसी आउटलेट्स पर छापा मारा था और प्रतिबंधित नशीली दवाओं की बिक्री के लिए उनके लाइसेंस रद्द कर दिए थे।कल, एक ड्रग पेडलर ने मोहाली में इनके कार्यालय में आकर दिनदहाड़े इन्हें गोली मार दी। पंजाब के लगभग 70-80% युवाओं को बर्बाद कर चुकी ड्रग्स से लड़ने वाली एक ईमानदार अधिकारी की गोली मारकर हत्या कर दी गई !नेहा की उन जैसे लोगों की बहादुरी उतनी ही महत्वपूर्ण है जितनी हमारे सशस्त्र बलों, सेना और पुलिस की। ये लोग देश को अंदर से सुरक्षित करते हैं! वे हमारे समाज, हमारे युवाओं, हमारे लोगों की रक्षा करते हैं! इस बहादुर और ईमानदार महिला को दिल से सैल्यूट है जिन्होंने कई युवाओं के भविष्य की रक्षा करते हुए अपने जीवन का बलिदान दिया!इस बात पर गौर कीजिए कि चारों तरफ सन्नाटा इलेक्ट्रॉनिक मीडिया चुप है, इसलिए अब पंजाब में ड्रग्स के मुद्दे पर कोई बात नहीं करेगा!)

FACT CHECK

নিউজমোবাইল এর সত্যতা যাচাই করে দেখেছে দাবিটি বিভ্রান্তিকর।

প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড অনুসন্ধান করার সময় আমরা ৩০ মার্চ, ২০১৯-এ দ্য স্টেটসম্যান (‌  The Statesman )‌-এ নেহা শোরির হত্যার বিষয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পেয়েছি। রিপোর্ট অনুসারে, ড্রাগ ইন্সপেক্টর নেহা শোরিকে পাঞ্জাবের খাররে তাঁর অফিসে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত তার লাইসেন্সড রিভলভার থেকে দুই রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে এবং তারপর নিজেকে গুলি করে। অভিযুক্ত অবশ্য বেঁচে যায় এবং তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এনডিটিভি (‌ NDTV )‌, ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস (‌ Financial Express )‌ এবং ইন্ডিয়া টাইমসও (‌ India Times )‌ এই ঘটনার খবর দিয়েছিল।

নেহা শোরিকে খাররের ড্রাগ অ্যান্ড ফুড কেমিক্যাল ল্যাবরেটরির জোনাল লাইসেন্সিং অফিসার হিসাবে পোস্ট করা হয়েছিল। সংবাদ সংস্থা পিটিআই পুলিশের একটি বিবৃতি উদ্ধৃত করে বলে, “অভিযুক্ত ব্যক্তি মহিলার অফিসে গিয়ে দুই রাউন্ড গুলি চালায়। এরপর তিনি পালানোর চেষ্টা করেন। পুলিশ অবিলম্বে ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযুক্তকে হেফাজতে নিয়েছিল।”

হামলাকারীকে ৫০ বছর বয়সী বলবিন্দর সিং হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে, যিনি মূলত মরিন্দার বাসিন্দা। পুলিশ জানিয়েছে যে তিনি মরিন্দায় একটি কেমিস্ট দোকানের মালিক ছিলেন, এবং ওই মহিলা অফিসার, নেহা শোরি, ২০০৯ সালে তাঁর ফার্মাসির লাইসেন্স বাতিল করেছিলেন৷ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে যে তিনি এই বিষয়ে বলবিন্দর সিংয়ের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলার নিষ্পত্তি করতে যাচ্ছিলেন৷

অতএব, উপরোক্ত তথ্যের ভিত্তিতে এই উপসংহারে আসা যেতে পারে যে ভাইরাল দাবিটি বিভ্রান্তিকর।