Fact check: থাইল্যান্ডের পুরনো ছবিকে কোভিড–১৯–এর সময় অক্সিজেন সংকটের বিরুদ্ধে মায়ানমারের লড়াই হিসেবে ভাইরাল করা হয়েছে

0 342

একটি শিশুকে অক্সিজেন দিতে দিতে বাইকে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, এমন একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা হচ্ছে। এই ছবিটিকে তুলে ধরা হচ্ছে কোভিড–১৯–এর তৃতীয় ঢেউয়ের সময় চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় অক্সিজেন নিয়ে মায়ানমারের সংকটের (‌ Myanmar battles )‌ প্রেক্ষাপটে।

ফেসবুকে এই পোস্টটি শেয়ার করা হচ্ছে একটি ক্যাপশন সহ যাতে বলা হচ্ছে, ‘‌সোনিক ইন মাই হার্ট ফোটো–সিআরডি। মায়ানমারের জন্য প্রার্থনা করুন।’‌

এখানে ওই পোস্টের (‌ post )‌ লিংক দেখুন। এমন আরও পোস্ট দেখুন (‌ here and here )‌।

এই ছবিটি টুইটারে (‌ Twitter )‌ একই রকম দাবিসহ শেয়ার করা হচ্ছে।

Fact check

নিউজ মোবাইল এর ফ্যাক্ট চেক করে দেখেছে যে এই দাবিটি ভুয়ো।

একটি সাধারণ রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আমরা পৌঁছে যাই ফেসবুক (‌ Facebook )‌–এর একটি পোস্টে, যা আপলোড করা হয়েছিল ২০১৯ সালের ৯ জুলাই। এটি আপলোড করেছিলেন একজন থাই ফেসবুক ইউজার। তাতে এই ছবিটিই ব্যবহৃত হয়েছিল।

ওই পোস্টের ক্যাপশনে লেখা হয়েছিল, ‘‌কথা বলতে পারছি না। কোনও ক্যাপশন ভাবতে পারছি না। মা ও বাবা মি চানে গাড়ি নিয়ে গেছেন। কে জানে বা দেখেছে, যদি আপনারা কেউ ওই ম্যাডামকে পৌঁছে দিতে সাহায্য করেন। আবহাওয়া ভীষণ গরম। বাবা অক্সিজেন ট্যাঙ্ক অ্যাডজাস্ট করার চেষ্টা করছেন। রাস্তায় প্রচুর ট্রাফিক রয়েছে এই সময়, আর অনেক লালবাতি। এই পৃথিবীতে আমার ধন্যবাদ যাদের বাবা–মা বলা হয় তাদের কাছ থেকে এই প্রকৃত ভালোবাসা পাওয়ার জন্য। অন্তত এই একটা ক্ষেত্রে সারা পৃথিবী সমানভাবে ভাগ্যবান।’‌

গুগল সার্চ করে দেখা যাচ্ছে, মি চান (‌ Mae Chan )‌ হল থাইল্যান্ডের একটি জেলা।

আরও অনুসন্ধান করে আমরা দেখতে পাই যে ২০১৯ সালের ১০ জুলাই একটি থাই সংবাদপত্রে (‌ Thai newspaper )‌ এই ছবিটি প্রকাশিত হয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী এক বাবা-মাকে একটি মোটরসাইকেলে করে তাঁদের শিশুকে নিয়ে যেতে হয়েছিল। শিশুটি শ্বাসের সমস্যায় ভুগছিল। তাঁদের সঙ্গে ছিল অক্সিজেন ট্যাঙ্ক এবং হাসপাতালের পৌছানোর সময় তাঁদের ব্যাপক গরমের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছিল।

থাই মিডিয়ায় আরেকটি রিপোর্টে (‌ report by Thai media )‌ বলা হয়েছিল, এই ছবিটি চিয়াং রাই ( Chiang Rai )  প্রদেশের একটি পরিবারের ছবি। তাঁদেরকে তাঁদের দু বছরের বাচ্ছাকে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যেতে হয়েছিল ডাক্তার দেখাতে। রিপোর্টে আরও বলা হয়েছিল যে তারপর ওই বাবা–মাকে তাঁদের বাচ্ছাকে মি চান ( Mae Chan ) প্রদেশ নিয়ে যেতে হয়েছিল। কারণ তাঁদের শিশুটি কঠিন শ্বাসজনিত সমস্যায় ভুগছিল। এই রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছিল ২০১৯ সালের ১০ জুলাই।

ওপরের তথ্যের থেকে একথা স্পষ্ট যে এই ছবিটি থাইল্যান্ডের একটি পুরনো ছবি, এবং তা অসত্য ভাবে শেয়ার করা হচ্ছে কোভিড–ও৯–এর তৃতীয় ঢেউয়ের সময় অক্সিজেন সংকটের বিরুদ্ধে মায়ানমারের লড়াই হিসেবে।