Fact check: এই ফুটেজ কি সত্যি সত্যি স্বাধীনতা সংগ্রামী বীর সাভারকারের জেলে থাকার সময়কার ফুটেজ?‌ সত্য জানুন এখানে

0 244

সামাজিক মাধ্যমে একজন ব্যক্তির জেলে থাকার একটি ভিডিও শেয়ার করা হচ্ছে। এতে দাবি করা হচ্ছে যে এটি স্বাধীনতা সংগ্রামী বিনায়ক দামোদর সাভারকার, যিনি বীর সাভারকার হিসেবে সমধিক পরিচিত, তাঁর সত্যিকারের ফুটেজ।

হিন্দি পোস্টে লেখা আছে:‌ “UNGRATEFUL INDIANS MUST WATCH THIS! ब्रिटिश पत्रकार ने अंडमान की जेल में जाकर ‘वीर सावरकर’ का यह दुर्लभ फुटेज बनाया था | बीबीसी ने भी अपने चैनल पर यह दिखाया था… जिसमें एक छोटी-सी कोठरी में वीर सावरकर कैद थे। ये सब यातनाएं वीर सावरकर ने देश की आज़ादी के लिए सहीं …. ना कि अपने किसी स्वार्थ, परिवार या पैसा कमाने के लिए। वंदेमातरम्”

(‌অনুবাদ:‌ এক ব্রিটিশ সাংবাদিক আন্দামান জেলে গিয়ে বীর সাভারকারের এই বিরল ফুটেজ তৈরি করেছিলেন। বিবিসি তাদের চ্যানেলে এটি দেখিয়েছিল …‌ এতে বীর সাভারকারকে একটি ছোট্ট কুঠুরিতে বন্দী অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। এই যন্ত্রণা বীর সাভারকার সহ্য করেছিলেন তাঁর দেশের স্বাধীনতার জন্য … তাঁর নিজের ব্যক্তিগত স্বার্থে বা তার পরিবারের স্বার্থে বা টাকার জন্য নয়। বান্দেমাতরম।)‌

 

ওপরের পোস্টের (‌ post )‌ লিঙ্ক দেখুন এখানে।

এমন আরও পোস্ট দেখুন এখানে (‌ here and here )‌।

Fact Check

নিউজ মোবাইল এই পোষ্টের ফ্যাক্ট চেক করে দেখেছে। দেখা যাচ্ছে এর দাবি বিভ্রান্তিকর।

ফেসবুক পোস্ট স্ক্যান করতে গিয়ে আমরা দেখতে পাই যে এই পোস্টটি এর আগেও এই বছরেই বহুবার শেয়ার করা হয়েছে।



তারপর আমরা প্রয়োজনীয় কিওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করে কিওয়ার্ড সার্চ করি, এবং দেখতে পাই অনেকগুলি ভিডিও।

তারপর আমরা সতর্কতার সঙ্গে এই ভিডিওটিকে পরীক্ষা করে দেখতে পাই যে ভাইরাল হওয়া এই ক্লিপটি তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তৈরি একটি ফিল্মের (‌ film ) অংশ‌। এই ফিল্মটি আপলোড করা হয়েছিল ২০১৪ সালে, এবং এর শীর্ষক ছিল ‘‌লাইফ অফ শ্রী বিনায়ক দামোদর সাভারকার’‌।

ভাইরাল ভিডিওটি ওই সিনেমার ২৫.‌০৯ মার্কে দেখা যাচ্ছে।

এরপর আমরা আরও কিওয়ার্ড সার্চ করে ফিল্ম ডিভিশন (‌ Film Division )‌–এর ওয়েবসাইটে যাই। সেই ওয়েবসাইট অনুযায়ী, এই ফিল্মটি ছিল বীর সাভারকারের জীবন নিয়ে ১৯৮৩ সালে প্রেম বৈদ্যর তৈরি।

ঘটনাক্রমে এই ফিল্মটি তৈরির ১৭ বছর আগে ১৯৬৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বিনায়ক দামোদর সাভারকরের মৃত্যু হয়েছিল।


কাজেই ওপরের তথ্য থেকে একথা স্পষ্ট যে এই ভিডিওটি সাভারকারকে নিয়ে তৈরি একটি ফিল্মের অংশ। এটি সত্যিকারের ফুটেজ নয়।