Fact Check: ‌ভিয়েতনামের একটি ছেলের একটি কুকুরছানাকে উদ্ধার করার ২০০৯ সালের ছবি মহারাষ্ট্রের বলে চালানো হচ্ছে

0 190
একটি ছবি ( picture ) সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা হচ্ছে যাতে দেখা যাচ্ছে একটি ছেলে গলা পর্যন্ত জলে দাঁড়িয়ে মাথার ওপর একটি পাত্রে একটা কুকুরছানাকে নিয়ে যাচ্ছে। দাবি করা হচ্ছে এটা সাম্প্রতিক বন্যার সময় মহারাষ্ট্রের শিবপুরীতে তোলা ছবি।

ফেসবুক পোস্টে (  Facebook ) লেখা আছে:‌ “भीषण बाढ़ के बीच एक मासूम द्वारा अपने जीवन के साथ साथ एक बेजुवान के जीवन को बचाने की इस मार्मिक तस्वीर से हमें काफी कुछ सीखने की जरूरत है। तस्वीर शिवपुरी मध्यप्रदेश”

(অনুবাদ:‌ ভয়ঙ্কর বন্যার সময় এই নিরীহ ছেলেটি যেভাবে নিজের এবং একটি নির্বাক জন্তুর জীবন রক্ষা করল তা থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। ছবি শিবপুরী, মধ্যপ্রদেশ)‌

এখানে ওপরের পোস্টের লিঙ্ক দেওয়া হল (‌ post )‌। এমন আরও পোস্ট দেখুন (‌ here and here )‌।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল এই পোস্টের ফ্যাক্ট চেক করে দেখেছে যে এটি ভুয়ো।

আমরা ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে অর দেখতে পাই এই একই ছবি রয়েছে ২০০৯ সালের ২৮ নভেম্বর ফোটো–শেয়ারিং ওয়েবসাইট ফ্লিকর–এ (‌ Flickr    )‌। তার বর্ণনায় বলা ছিল :‌ “ভেতনামের বাক লিউ প্রদেশে পরিবেশের অবস্থা।”

এই তথ্য পাওয়ার পর কি–ওয়র্ডের সাহায্যে আর একটা রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আমরা দেখতে পাই ভিএন এক্সপ্রেস (‌ VN Express   )‌ নামে আর একটি অনলাইন সংবাদপত্রেও ছবিটি আছে। এই প্রতিবেদনে ছবিটি স্টক ইমেজ হিসেবে ব্যবহার করা হলেও ক্যাপশনে বলা ছিল সেটি দক্ষিণ ভিয়েতনামের হাউ গিয়াং প্রদেশে একটি ছেলের বন্যার জলের মধ্যে মাথার ওপর একটি পাত্রে একটা কুকুরছানাকে নিয়ে যাওয়ার ছবি।

ক্যাপশনে বলা ছিল যে গুয়েন থান লাই নামের একজন চিত্রগ্রাহক ছবিটি তুলেছেন।

ভিএন এক্সপ্রেসের ফোটো গ্যালারিতেও (‌ photo gallery )‌ এই ছবিটি আছে। চিত্রগ্রাহক লাই বলেছেন তিনি হাউ গিয়াং প্রদেশে ছবিটি তুলেছিলেন। ফুং হিয়েপ বাজারের কাছে তিনি একটি ছেলেকে জলের মধ্যে একটি পাত্রে কুকুরছানাটিকে নিয়ে আসতে দেখে ছবিটি তোলেন।

তিনি বলেছেন এই ছবিটি ডাউনলোড করে নানা জনের নানা জায়গার নাম দিয়ে দিয়েছেন।

তাঁর সামাজিক মাধ্যমের অ্যাকাউন্ট থেকে আমরা ছবিটির সম্পাদিত অংশ ফ্লিকর–এ (‌Flickr)‌ দেখতে পাই। ২০০৯ সালের নভেম্বরে প্রকাশিত পোস্টে বলা ছিল এটি ভিয়েতনামের হাউ গিয়াং–এর ভি থানে তোলা। ছবিটির EXIF তথ্য এখানে পাবেন (‌here)‌।

কাজেই ওপরের তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আমরা বলতে পারি এটি মহারাষ্ট্রের শিবপুরীর ছবি নয়, এটি ২০০৯ সালের ভিয়েতনামের ছবি।