Fact Check: জয়পুরে বাসের মধ্যে জল ভরে যা‌ওয়ার একটি ভিডিওকে এমনভাবে শেয়ার করা হচ্ছে যেন তা সম্প্রতি দিল্লিতে ঘটেছে

0 193

দিল্লি যখন দেরিতে আসা মৌসুমী বৃষ্টিকে স্বাগত জানাচ্ছে, আর অনেক রাস্তায় জল জমে গেছে, সেই সময় একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটা লো–ফ্লোর বাসে জল ভরে যাওয়ার দৃশ্য। এই ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা হচ্ছে এই দাবি করে যে এটি দিল্লির সাম্প্রতিক পরিস্থিতির ছবি।

পোস্টে বলা হয়েছে:‌ “#AdManKejriwal केजरीवाल का लंदन देख लो…दिल्ली की बारिश में बस, ऑटो और कार सब जल की रानी होती है.”  (‌অনুবাদ কেজরিওয়ালের লন্ডন দেখুন। দিল্লির বৃষ্টিতে জলের রানী হল বাস-অটো এবং গাড়ি।)‌

এইখানে ওপরের পোস্ট–এর (‌ post )‌ লিঙ্ক দেওয়া হল।

Fact Check

নিউজ মোবাইল পোস্ট–এর ফ্যাক্ট চেক করে দেখেছে যে দাবিটি ভুয়ো।

আমরা ভিডিও থেকে কি–ফ্রেমগুলি বার করে নিয়ে ইনভিড টুল ব্যবহার করে সেগুলির বিশ্লেষণ করি।

ভিডিওটির শুরুতেই একটি সাইনবোর্ড দেখা যাচ্ছে যাতে লেখা আছে ‘‌এস এম এস হসপিটাল’‌।

আমরা এর কি–ওয়র্ড সার্চ করে দেখতে পাই রাজস্থানের জয়পুরের সরাই মান সিং হসপিটাল মানুষের কাছে সমধিক পরিচিত এস এম এস হসপিটাল নামে।

এর সূত্র ধরে আমরা ভিডিওটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করি, আর তার সঙ্গে ‘‌জয়পুর’‌, ‘‌‌বৃষ্টি’‌, ‘‌লোকাল বাস’‌ প্রভৃতি কি–ওয়র্ড ব্যবহার করি। আমরা দেখতে পাই ২০২০ সালের ১০ আগস্ট ইউটিউব–এ (‌  YouTube )‌ এই ভিডিওটি বৃহত্তর ভার্সান দেওয়া আছে।

ভিডিওটি ভালো করে নজর করে আমরা দেখতে পাই ‘‌নাসিয়াঁ ভট্‌রকজি’‌ বলে আরেকটি সাইনবোর্ড ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে।

আমরা অনুসন্ধান করে দেখতে পাই সেটি জয়পুরের একটি জৈন মন্দির (‌Jain Temple in Jaipur )‌।

তাছাড়াও আমরা লক্ষ্য করি ভিডিওটির ০.‌৫৯ সেকেন্ডে দেখা যাচ্ছে একটি বাসের কাচের উপরে কিছু লেখা রয়েছে। যেহেতু ভিডিওটি নেওয়া হয়েছে বাসের ভেতর থেকে তাই লেখাটি উল্টো হয়ে গিয়েছিল। আমরা সেই লেখাটির স্ক্রিনশট নিয়ে সেটিকে উল্টো করে দেখতে পাই তাতে হিন্দিতে লেখা রয়েছে ‘‌জয়পুর বাস’‌।

এরপর আমরা আরও অনেকগুলি রিপোর্ট দেখতে পাই যেখানে এই ভিডিওটি রয়েছে জয়পুরে প্রবল বৃষ্টির পর রাস্তা ভেসে যাওয়ার খবরের সঙ্গে।

তাছাড়া ২০২০ সালে ১৩ আগস্ট আম আদমি পার্টি (‌ Aam Aadmi Party )‌–র একটি টুইটেও একথা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে ছবিটি দিল্লির নয়, রাজস্থানের।

কাজেই উপরের তথ্যগুলোর ভিত্তিতে এটা স্পষ্ট যে এই ভিডিওটি দিল্লির নয়, এবং যা দাবি করা হচ্ছে তা ভুয়ো।