Fact Check: ‘জানুয়ারি ২০১৯–এর পরে যোগ দেওয়া অন্যান্য র‌্যাঙ্ক অগ্নিপথ প্রকল্পের আওতায় আসবে’ দাবি করা চিঠিটি জাল

0 695

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নাম করে একটি চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হচ্ছে যেখানে দাবি করা হয়েছে যে ‘অন্যান্য র‌্যাঙ্কের অধীনে থাকা যে কর্মীদের ০১ জানুয়ারি ২০১৯–এর পরে ভর্তি করা হয়েছে এবং ০১ জুলাই ২০২২ তারিখে নায়েকের মূল পদে বা সমতুল্য পদে উন্নীত করা হয়নি তাঁদের নতুন অগ্নিপথ প্রকল্পের অধীনে রাখা হবে’‌।

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা চিঠির সঙ্গে শেয়ার করছেন,“मोदी सरकार का एक और #दमनकारी_फैसला। भारतीय सेना में जो जवान 31 December 2018 के बाद भर्ती हुए हैं वो सभी जवान “अग्निवीर” घोषित कर दिये हैं।”

(‌অনুবাদ: মোদি সরকারের আরেকটি #নিপীড়নমূলক_সিদ্ধান্ত। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮–র পরে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগদানকারী সমস্ত সৈন্যকে “অগ্নিবীর” ঘোষণা করা হয়েছে।)

এখানে ওপরের পোস্টের ( post)  লিঙ্ক দেওয়া হল।

FACT CHECK

নিউজমোবাইল পোস্টটির সত্যতা যাচাই করেছে এবং এটি মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে।

আমরা কিওয়ার্ড অনুসন্ধান চালালেও দাবিটির সমর্থনে কোনও বিশ্বাসযোগ্য মিডিয়া রিপোর্ট পাইনি। অগ্নিপথ প্রকল্পের (Agnipath scheme)‌ অধীনে চার বছরের স্বল্পমেয়াদী চুক্তির ভিত্তিতে তিনটি সশস্ত্র পরিষেবায় প্রায় ৪৬,০০০ সৈন্য নিয়োগ করা হবে সাড়ে ১৭ থেকে ২১ বছর (২০২২ সালের জন্য ২৩) বয়সের মধ্যে।

তাছাড়া, চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে তারিখটি ১৭ জুন, ২০২২। আমরা কিন্তু প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ( Ministry of Defence )‌ ওয়েবসাইটে প্রেসনোটগুলি স্ক্যান করেও এমন কোনও চিঠি পাইনি।

‌আরও অনুসন্ধান করে আমরা আরও দেখতে পেলাম যে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোও (‌ Press Information Bureau )‌ ২০ জুন, ২০২২ তারিখের একটি টুইটে দাবিটি অস্বীকার করেছে।

সুতরাং, উপরের সত্যতা যাচাই থেকে স্পষ্ট ভাইরাল চিঠিটি জাল।