Fact Check: এই ভাইরাল ভিডিওটিতে কি সিন্ধুপ্রদেশের জামশোরোতে ক্লাউডবার্স্ট দেখা যাচ্ছে? এখানে সত্য

0 668

পাকিস্তানের এন ডি এম এ, অর্থাৎ ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটি ( National Disaster Management Authority ),   জানিয়েছে যে আকস্মিক বন্যা এবং অন্যান্য বৃষ্টি-সম্পর্কিত ঘটনায় কমপক্ষে ৩৬ জন নিহত এবং ১৪৫ জন আহত হয়েছে।

উপরোক্ত প্রেক্ষাপটে পাকিস্তানের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক ফেডারেল মন্ত্রী শেরি রেহমান একটি ক্যাপশন সহ ক্লাউডবার্স্ট–এর একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করেছেন যে এটি সিন্ধের জামশোরো শহরের। অনেকে ক্যাপশন সহ একই ভিডিও শেয়ার করেছেন: “সিন্ধুর জামশোরোতে রেকর্ড করা একটি খুব বিরল ক্লাউডবার্স্ট–এর দৃশ্য।”

পোস্টটির লিঙ্ক দেখা যাবে এখানে (‌ here )‌।

FACT CHECK

নিউজমোবাইল এর সত্যতা যাচাই করেছে এবং এটি বিভ্রান্তিকর বলে মনে করেছে।

একটি কিফ্রেমের সাহায্যে গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চ করার সময় আমরা ডেইলিমেইল ইউকে (‌ DailyMail UK )–র‌ ২৫ ফেব্রুয়ারি,২০২০ তারিখে আপলোড করা একই ভিডিও দেখতে পেয়েছি, যার শিরোনাম: “বিপর্যয়কর বৃষ্টি এবং আকাশে মার্শম্যালো: পার্থ–এ বৃষ্টি, বজ্রপাত, শিলাবৃষ্টি হচ্ছে, ঝড়ে গাছ উপড়ে গিয়েছে, রাস্তায় বন্যার জল, গাড়ি ও ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত।”

ভিডিওটির স্ক্রিনশট ৫ আগস্ট, ২০২২ তারিখে একটি ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয়েছিল — কেন আর্টি ফোটোগ্রাফি (‌  Kane Artie Photography )‌ — যার ক্যাপশন সহ: “এটি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঝড় টাইমল্যাপসের শটগুলির মধ্যে একটি। যখন এই মাইক্রোবার্স্টগুলি মাটিতে আঘাত করেছিল, তারপর সমস্ত শক্তিকে কোথাও তো যেতে হবে, এবং এটি বাইরের দিকে বিস্ফোরিত হয়। আমি যখন গাড়িতে ফিরে আসার জন্য দৌড়ে যাচ্ছিলাম, তখন বুঝতে পারলাম তারা কতটা শক্তিশালী। আমাকে প্রায় উড়িয়ে নিয়ে গিয়েছিল এবং গাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য বেড়া বরাবর নিজেকে টানতে টানতে নিয়ে গিয়েছিলাম। আমি মিথ্যা বলব যদি আমি বলি যে আমি সেই সময়ে বিধ্বস্ত হয়ে যাইনি। কিন্তু মশাই, মা প্রকৃতি কী তৈরি করতে পারে তা দেখতে বড় সুন্দর।”

এই ভিডিওটি ফেসবুক পেজেও (‌ Facebook page )‌ আপলোড করা হয়েছিল একথা উল্লেখ করে যে এটি ২০২০ সালে নেওয়া৷ এই ভিডিওটিতে একটি জলছাপ ছিল: “কেন আর্টি ফটোগ্রাফি”৷

কাজেই আমরা বলতে পারি ভাইরাল দাবি বিভ্রান্তিকর।