Fact Check: এই ভাইরাল ছবিতে কি ইউক্রেনের ট্যাঙ্ক দেখা যাচ্ছে ইরাকে?‌ সত্য জানুন এখানে

0 517

ইউক্রেনের পতাকা সহ একটি ট্যাঙ্কের ছবি এবং তার পটভূমিতে সাদ্দাম হোসেনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হচ্ছে। ছবিটি একটি ক্যাপশন সহ শেয়ার করা হয়েছে এই দাবি করে যে এটি সেই মুহূর্তটি দেখায় যখন ইউক্রেনীয় সৈন্যরা ইরাকের বিরুদ্ধে মার্কিন যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে বাগদাদে ঢুকেছিল।

ছবিটি একটি ক্যাপশন সহ শেয়ার করা হয়েছে যাতে লেখা রয়েছে, “পাপ বাপকেও ছাড়ে না যদিও যুদ্ধের বিপক্ষে তারপর ও স্বরন করতে মনে চাচ্ছে মিথ্যা আযুহাত দিয়ে ইরাকে হামলা চালাতে আমেরিকার সংগী হয়ে এসেছিল, হত্যা করেছিল সাধারণ মানুষকে, আজকে তাদেরকে মারতে রাশিয়া হাজির ছবিতে ইউক্রেনের ট্যাংক ইরাকে হামলায়।”

পোস্টটের লিঙ্ক দেখতে পাবেন এখানে (‌ here  )‌।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল এর সত্যতা যাচাই করে দেখেছে যে এই দাবি অসত্য।

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চ করার সময় আমরা দেখতে পেলাম যে একই রকম একটি ছবি আলবাওয়াবা (‌ Albawaba   )‌ ওয়েবসাইট ৫ ডিসেম্বর, ২০১৩-এ প্রকাশ করেছিল, যার ক্যাপশনে লেখা ছিল, “পরিবেশগত পুনর্বাসনের জন্য কুয়েতি লিয়াজোঁ কমিশনের সেক্রেটারি-জেনারেল বলেছেন যে রাষ্ট্রপুঞ্জের ২৫৮ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী কুয়েত যে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে তাতে আছে ছয়টি পুনরুদ্ধার উদ্যোগ।’‌’‌

ভাইরাল ছবিটিকে আসল ছবির সঙ্গে তুলনা করে আমরা দেখতে পেলাম যে আসল ছবিতে ইউক্রেনের পতাকা ছিল না।

ট্যাঙ্কের একটি অনুরূপ চিত্র গেটি ইমেজ (‌  Getty Image   )‌ এই ক্যাপশন সহ আপলোড করেছিল, “একজন মার্কিন সৈন্য একটি আব্রামস এম১/এ১ ট্যাঙ্কের উপরে ১ মার্চ, ১৯৯১ সালে কুয়েত শহরের উপকণ্ঠে ইরাকি রাষ্ট্রপতি সাদ্দাম হোসেনের একটি ছবির নীচে দাঁড়িয়ে আছেন৷ (পাসকাল গুয়োইয়োত/এএফপি ছবি) (গেটি ইমেজেস–এর এর মাধ্যমে পাসকাল গুয়োইয়োত/এএফপি ছবি)।”

ল্যান্ডমার্কের আর একটি অনুরূপ চিত্র গেটি ইমেজ (‌ Getty Image   )‌ দ্বারা এই ক্যাপশন সহ আপলোড করা হয়েছিল, “পারস্য উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় কুয়েতে মোতায়েন করা মার্কিন সৈন্যরা সাদ্দাম হোসেনের একটি ম্যুরালের সামনে বিশ্রাম নিচ্ছেন। ১৯৯০ সালের আগস্টে ইরাকি রাষ্ট্রপতি সাদ্দাম হোসেন কুয়েত আক্রমণ করেছিলেন, যার ফলে দেশগুলির একটি জোট ইরাককে কুয়েত থেকে বিতাড়িত করতে এই অঞ্চলে সেনা পাঠিয়েছিল। (গেটি ইমেজেস–এর মাধ্যমে জাক ল্যাঙ্গেভিন/‌সিগমা/সিগমা-র ছবি)।”

তাই আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারি যে একটি মর্ফড ছবি ভাইরাল হয়েছে এই দাবি করে যে তাতে ইরাকে একটি ইউক্রেনীয় ট্যাঙ্ক দেখা যাচ্ছে।