Fact Check: ভারতীয় সংবিধানের কপি পোড়ানোর এই ভিডিওটি মধ্যপ্রদেশের নয়

0 77

ভারতীয় সংবিধানের একটি কপি পোড়ানোর একটি ভিডিও ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই দাবি করা হয়েছে যে এটি মধ্যপ্রদেশের একটি সাম্প্রতিক ভিডিও।

এই ক্যাপশন দিয়ে ভিডিওটি শেয়ার করছেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা:‌ एमपी का यह वीडियो है इसमें यह लोग संविधान को जला रहे हैं और डॉक्टर बी आर अंबेडकर मुर्दाबाद के नारे लगा रहे हैं ऐसे लोगों पर देशद्रोह का मुकदमा दर्ज किया जाना चाहिए #जयभीम

(‌অনুবাদঃ এটা এমপির ভিডিও। এই লোকেরা সংবিধান জ্বালিয়ে ডক্টর বি আর আম্বেদকরের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছে। এই ধরনের লোকদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা উচিত।)

এখানে উপরের পোস্টের (‌ post.)‌ লিঙ্ক দেওয়া হল।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে যে এটি পুরনো।

আমরা ভিডিওর কিফ্রেমের একটি রিভার্স ইমেজ সার্চ চালিয়েছি, এবং ইউটিউব ( YouTube )-এ একই ভিডিও পেয়েছি, যা ২০২২সালের জানুয়ারিতে আপলোড করা হয়েছিল।

এটি ইঙ্গিত করে যে ভিডিওটি পুরনো। তাই, আমরা একটি কিওয়ার্ড সার্চ চালালাম এবং দেখতে পেলাম যে ১৩ অগাস্ট, ২০১৮-এ ইউটিউবে (‌ YouTube )‌ একই ভিডিও আপলোড করা হয়েছিল। ভিডিওর বিবরণে লেখা ছিল, ‘সংবিধান পোড়ানো গণতন্ত্র এবং ধর্মনিরপেক্ষতাকে প্রত্যাখ্যান করছে, যার উপর ভারত দাঁড়িয়েছে। অখিল ভারতীয় ভীম সেনার পক্ষ থেকে যে সমস্ত প্রান্তিক গোষ্ঠী নয়াদিল্লিতে ১০ই আগস্ট ২০১৮-এ সংবিধান পুড়িয়েছিল তাদের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে ৷ সংবিধান পোড়ানোর সময় গুণ্ডারা সংবিধান বিরোধী, আম্বেডকর বিরোধী এবং এসসি/এসটি বিরোধী স্লোগান দিয়েছিল।

আমরা ১৩ আগস্ট, ২০১৮ তারিখের হিন্দুস্তান টাইমসের (‌ Hindustan Times )‌ একটি প্রতিবেদনও পেয়েছি যেখানে বলা হয়েছে যে নয়াদিল্লির পার্লামেন্ট স্ট্রিটে একটি প্রতিবাদ মিছিল চলাকালীন ভারতীয় সংবিধানের অনুলিপি পোড়ানোর জন্য একজন ৪০ বছর বয়সী ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

প্রতিবেদনে এ কথাও উল্লেখ করা হয়েছে যে জাতীয় সম্মানের অবমাননা প্রতিরোধ আইনে এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির কঠোর ধারায় যে ব্যক্তি বিক্ষোভের আয়োজন করেছিলেন তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল।

এই ঘটনাটি ২০১৮ সালের আগস্টে এনডিটিভি, টিওআই (  NDTVTOI ) এবং নবভারত টাইমস (‌ Navbharat Times  )‌–ও কভার করেছিল।

সুতরাং, এটি স্পষ্ট যে প্রচারিত ভিডিওটি পুরানো এবং মধ্যপ্রদেশের নয়।