Fact Check: প্রধানমন্ত্রী মোদী উচ্চবর্ণের বিরুদ্ধে হিংসা উসকে দিয়েছেন বলে ভাইরাল পোস্টের দাবি বিভ্রান্তিকর

0 10

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিম্নবর্ণের বিরুদ্ধে নৃশংসতার কথা বলছেন, এমন একটি নিম্ন-রেজোলিউশন ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হচ্ছে। ভিডিওটি একটি ক্যাপশন দিয়ে শেয়ার করা হয়েছে যাতে দাবি করা হয়েছে যে প্রধানমন্ত্রী মোদী তার ভাষণে উচ্চবর্ণের বিরুদ্ধে হিংসা উস্কে দিয়েছেন।

ভিডিওতে তাঁকে বলতে শোনা যায়: “এমন একজন যাঁকে অনেক অন্যায় সহ্য করতে হয়েছে, যাঁর লালন-পালন চিহ্নিত হয়েছে অন্যায়, নৃশংসতা ও হয়রানি দ্বারা ; যিনি তাঁর মাকে তাঁর সামনে অপমানিত হতে দেখেছেন। আমাকে বলুন, সুযোগ দিলে তাঁরা কি প্রতিশোধ নেবেন না? আপনিই সেই ব্যক্তি যিনি আমাকে মন্দিরে প্রবেশ করতে, জল স্পর্শ করতে এবং আমার বাচ্চাদের স্কুলে যেতে নিষেধ করেছিলেন।”

একজন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী একটি ক্যাপশন সহ ভিডিওটি শেয়ার করেছেন: “सवर्णों को सबक सिखाने के लिए एक वर्ग विशेष को उकसाते हुए आदरणीय @narendramodi जी।” (অনুবাদ: “আদরণীয় নরেন্দ্র মোদিজি উচ্চবর্ণকে শিক্ষা দেওয়ার কথা প্রচার করছেন বিশেষ বর্ণের মানুষদের কাছে”) ।

পোস্টটির লিঙ্ক দেখা যেতে পারে এখানে (‌ here )‌ ।

FACT CHECK

নিউজমোবাইল এর সত্যতা-যাচাই করেছে, এবং এটি বিভ্রান্তিকর বলে মনে করেছে।

উপযুক্ত কিওয়ার্ড দিয়ে গুগলে সার্চ করে, আমরা একই ভিডিও পেয়েছি ডিডি নিউজ (‌ DD News )‌–এ, যা আপলোড করা হয়েছিল ২১শে মার্চ, ২০১৬-এ এই ক্যাপশন সহ: “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দিল্লিতে ডক্টর আম্বেডকর স্মারক ভাষণ দিচ্ছেন।”

সম্পূর্ণ ভিডিওতে আমরা তাঁকে বলতে শুনেছি: “আপনি কি মনে করেন যে একজন মহান ব্যক্তি যাঁর সঙ্গে এত অন্যায় হয়েছে, যিনি তাঁর শৈশবটি অন্যায়, অত্যাচার ও হয়রানির মধ্যে কাটিয়েছেন, যিনি তাঁর মাকে অপমানিত হতে দেখেছেন, যদি সুযোগ দেওয়া হয় তবে তিনি প্রতিশোধ নেবেন না? সুযোগ?… কিন্তু বাবাসাহেব আম্বেডকর এতটাই মহান ছিলেন যে, এমনকি যখন তাঁর সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা ছিল, তিনি সংবিধানের খসড়ার জন্য যে শব্দগুলি ব্যবহার করেছিলেন তাতে আপনি অসন্তোষের কোনও প্রমাণ খুঁজে পাবেন না।”

২১ শে মার্চ, ২০১৬-এ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (‌ Narendra Modi )‌ যাচাইকৃত ইউটিউব চ্যানেলে একই ভিডিওর একটি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের সংস্করণ আপলোড করা হয়েছিল। ভিডিওটি এই ক্যাপশন সহ শেয়ার করা হয়েছিল: “ডঃ বি আর আম্বেডকর জাতীয় স্মৃতিসৌধ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভাষণ।”


সুতরাং, আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারি যে ভাইরাল দাবিটি বিভ্রান্তিকর।