Fact Check: দলিত মহিলা ইউপি–তে ছয় মুসলিম যুবকের শিরশ্ছেদ করেছে বলে ভাইরাল স্ক্রিনশটের দাবি ভুয়ো

0 1,156

ইউপি তক দ্বারা প্রকাশিত একটি নিবন্ধের একটি স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দাবি করা হয়েছে যে একজন হিন্দু দলিত মহিলা উত্তরপ্রদেশের বাবতপুরে ধর্ষণ ও ধর্মান্তরের হুমকির সম্মুখীন হওয়ার পরে ছয়জন মুসলিম যুবকের শিরশ্ছেদ করেছেন।
ছবিটি ফেসবুকে এই ক্যাপশন সহ শেয়ার করা হয়েছে: “बलात्कार और धर्मांतरण की धमकी देने पर 6 मुस्लिम युवको का गला काट दलित हिंदू युवती फरार ; बाबतपुर स्थित काली मंदिर से 6 कटे सिर बरामद नारी शक्ति , जय हिंदू राष्ट्र जय श्री राम जय भवानी” (‌অনুবাদ:‌ ধর্ষণ ও ধর্মান্তরের হুমকির মুখে ছয় মুসলিম যুবকের গলা কেটে পলাতক দলিত হিন্দু মেয়ে; বাবতপুরের কালী মন্দির থেকে ছিন্ন মস্তক উদ্ধার, নারী শক্তি, হিন্দু জাতি, জয় ভগবান রাম, জয় ভবানী)

এখানে উপরের পোস্টের  (‌ post )‌ লিঙ্ক।

ছবিটি ফেসবুকে (‌ Facebook )‌ ভাইরাল হয়েছে।

FACT CHECK
নিউজমোবাইল উপরোক্ত দাবিটি সত্য-নিরীক্ষা করেছে এবং এটি মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে।

গুগল (‌ Google )‌  সার্চে  ভাইরাল হওয়া স্ক্রিনশটে বর্ণিত অভিযোগের বিষয়ে আমরা কোনও বিশ্বাসযোগ্য মিডিয়া রিপোর্ট খুঁজে পাইনি।

তবে আমরা ১৮ জুন, ২০২৩ তারিখে ডিসিপি, বারাণসী পুলিশ, গোমতী জোন দ্বারা শেয়ার করা একটি টুইট (‌ tweet )‌ দেখেছি, যেখানে বলা হয়েছে যে ভাইরাল স্ক্রিনশটে উল্লিখিত ঘটনাটি একটি “ভুয়া খবর”।

ইউপি তকও টুইটার (‌ Twitter )‌ ব্যবহার করে এ কথা স্পষ্ট করেছে যে ভাইরাল স্ক্রিনশটটি “সম্পূর্ণ অসত্য এবং বিভ্রান্তিকর।” ১৯জুন, ২০২৩ তারিখের টুইটে আরও লেখা হয়েছে: “এই কাল্পনিক খবরটি ইউপি তকের নাম (লোগো) সহ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর। দয়া করে এই ধরনের বিভ্রান্তিকর খবরে কান দেবেন না। বারাণসী কমিশনারেটও এই খবর অস্বীকার করেছে। যারা এ ধরনের পোস্ট শেয়ার করবে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেবে। #UPTak #FakeNews #UttarPradesh।”

সুতরাং, উপরের তথ্য থেকে এটি স্পষ্ট যে ভাইরাল স্ক্রিনশটটি ভুয়া।