Fact Check: আইইসিএমআর এমন কোনও কোভিড–১৯ গাইডলাইন কি দিয়েছে?‌এই ফেক ফরওয়ার্ড বিশ্বাস করবেন না।

0 739

একটি পোস্ট ( post )‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে যাতে বলা হয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (‌আইসিএমআর)‌ একটি পাবলিক নোটিস জারি করে কিছু গাইডলাইন অনুসরণ করতে বলেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার এই বিষয়বস্তুটিতে লেখা আছে ‘‌ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ নিউ দিল্লি’‌। এর কয়েকটি গুরুত্পূর্ণ বিষয় মন দিয়ে দেখুন:‌
১। বিদেশযাত্রা দু’‌বছরের জন্য স্থগিত রাখুন।
২। ১ বছর বায়রের খাবার খাবেন না।
৩। অপ্রয়োজনে বিয়েবাড়িতে বা এই ধরণের সামাজিক অনুষ্ঠানে যাবেন না।
৪। অপ্রয়োজনে বেড়াতে যাবেন না।
৫। ১ বছর কোনও ভিড়ের জায়গায় যাবেন না।
৬। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম মেনে চলুন।
৭। যাঁর কাশি হচ্ছে তাঁর থেকে দূরে থাকুন।
৮। মাস্ক পরে থাকুন।
৯। চলতি সপ্তাহটা খুব সাবধানে থাকুন।
১০। কাউকে খুব কাছে ঘেঁষতে দেবেন না।
১১। নিরামিষ খাবারকে অগ্রাধিকার দিন।
১২। ৬ মাসের সিনেমা হল, মল বা ভিড়ে ঠাসা বাজারে যাবেন না। পারলে পার্ক, পার্টি প্রভৃতিও এড়িয়ে চলুন।
১৩। নিজের প্রতিরোধশক্তি বাড়ান।
১৪। সেলুন বা পার্লারে গেলে সাধান থাকুন।
১৫। অপ্রয়োজনীয় মিটিং এড়িয়ে চলুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।
১৬। ‘‌করোনা’‌র বিপদ কিছুদিনের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে না।
১৭। বায়রে গেলে বেল্ট, হাতঘড়ি বা দুল পরবেন না। ঘড়ির দরকার নেই। মোবাইলেই সময় দেখা যায়।
১৮। রুমাল নেবেন না। টিস্যু ও স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন।
১৯। জুতো পরে ভেতরে ঢুকবেন না। সেগুলো বায়রে রাখুন।
২০। বায়রে থেকে বাড়িতে ঘুকে হাত–পা ধুয়ে ফেলুন।
২১। কোনও অসুস্থ ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন মনে হলে স্নান করুন। লকডাউন থাকুক বা না–থাকুক, আগামী ৬ মাস এই নির্দেশিকাগুলো পালন করুন। পরিবারের লোকজন ও বন্ধুদের সঙ্গে এটি শেয়ার করুন।

এখানে link দেওয়া হল

Fact Check
‌নিউজ মোবাইল এই পোস্টটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে এটি ফেক এবং বিভ্রান্তিকর।
আমরা আইসিএমআরের নির্দেশিকাগুলো খতিয়ে দেখি সেখানে এই ধরণের কিছু আছে কি না। সেখাvs এমন কোনও ২১ পয়েন্টের নির্দেশিকা পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি সম্পর্কে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়ার জন্য মোবাইলনিউজ আইসিএমআরের হেড অফ পলিসি প্ল্যানিং ডক্টর রজনী কান্তের কাছে এই ভাইরাল পোস্টটির বিষয়ে জানতে চায়। তিনি আমাদের জানান এই ভাইরাল পোস্টটি ফেক, এবং এমন কোনও নির্দেশিকা আইসিএমআর দেয়নি।
কাজেই এটা নিশ্চিত যে এই ২১ পয়েন্টের গাইডলাইনটি আইসিএমআর দেয়নি। এই ফেক পোস্টটিকে গুরুত্ব দেবেন না।